করোনায় শ্রমিক না পাওয়ায় বোরো ধান কেটে দিলেন রংপুর মহানগর কৃষকদল

করোনায় শ্রমিক না পাওয়ায় বোরো ধান কেটে দিলেন রংপুর মহানগর কৃষকদল

করোনায় শ্রমিক না পাওয়ায় বোরো ধান কেটে দিলেন রংপুর মহানগর কৃষকদল


আসাদুজ্জামান আফজাল রংপুর
বিএনপি’র চেয়ারপার্সন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে এবং বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের আহবায়ক শামসুজ্জামান দুদু, ও কৃষক দলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন নির্দেশনায় করোনার দুর্দিনে ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম অব্যহত রাখার পাশাপাশি এবার অসহায় কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে রংপুর মহানগর কৃষকদল। সোমবার সকালে রংপুর মহানগরীর ১২ নং ওয়ার্ডের চক ইসপপুর এলাকায় রংপুর মহানগর কৃষকদলের উদ্দ্যোগে অসহায় কৃষক আব্দুর সাত্তার ঘোতার এক একর জমির পাকা ধান কাটা ও মারাই করে দিলেন রংপুর মহানগর কৃষকদলের আহবায়ক শাহ্ নেওয়াজ রহমান লাবুর নেতৃত্বে। এসময় সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ফিরোজ রহমান পিন্টু, যুগ্ম আহবায়র দিল মেরাজুল দুলু, মজিবর রহমান মাষ্টার, সদস্য আব্দুল মফিজ চাচা, নুর ইসলাম চাচা, বিভিন্ন ওয়ার্ড হতে আগত মোকলেছুর রহমান, আলমগীর হোসেন আনারুল ইসলাম, ফরিদুল ইসলাম, রানা মিয়া, গোলজার হোসেন, তুহিন মিয়া, আজাহার আলী, মাসুদ রানা, মনতাজুল ইসলাম প্রমুখ অংশ নেন। রংপুর মহানগর কৃষকদলে আহবায়ক শাহ্ নেওয়াজ রহমান লাবু বলেন, বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে এবং বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহবায়ক শামসুজ্জামান দুদু ও কৃষকদলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন নির্দেশনায় আমরা অসহায় কৃষকের ধান কেটে ও মাড়াই করে দিচ্ছি। আমরা আজ সোমবার মহানগরীর ১২ নং ওয়ার্ডের চক ইসপপুর এলাকায় এই ধান টাকা কার্যক্রম শুরু করেছে। আমাদেরকে যেখানেই ডাকবে সেখানেই যাবো ছুটে। থাকবো কুষকের পাশে সবসময়। আব্দুর সাত্তার বলেন, হঠাৎ ঝড় বৃষ্টি হওয়াতে জমির পাকা ধান কাটা নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় ছিলাম। আমার হাতে টাকাও ছিল না। এমন অভাবের এক একর জমির ধান কারা মাড়াই করতে অনেক টাকা লাগত। সেই খরচ করার মতো এখন আমার সামর্থ্য নেই। তাই আমি রংপুর মহানগর কৃষকদলের নেতা-কর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞ।