তদন্তে নয় অনিয়ম ও দুর্নীতিতে অ্যাকশন নেয়ায় বিশ্বাসী : ব্যারিষ্টার তাপস

 তদন্তে নয় অনিয়ম ও দুর্নীতিতে অ্যাকশন নেয়ায় বিশ্বাসী : ব্যারিষ্টার তাপস

 তদন্তে নয় অনিয়ম ও দুর্নীতিতে অ্যাকশন নেয়ায় বিশ্বাসী : ব্যারিষ্টার তাপস

এএনবি ঃ কোনো ঘটনার তদন্তে নয়, বরং অনিয়ম ও দুর্নীতির সত্যতা পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গেই অ্যাকশন নেয়ায় বিশ্বাসী বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ বৃহস্পতিবার নগর ভবনে ডিএসসিসির ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণাকালে তিনি এ কথা জানান।

ডিএসসিসি মেয়র বলেন, আমি কোনো ঘটনার তদন্তে বিশ্বাসী নই। যখনই কোথাও কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি হবে এবং যদি তার সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে সঙ্গে সঙ্গেই অ্যাকশন। অর্থাৎ আমি 'হায়ার অ্যান্ড ফায়ারে' বিশ্বাসী।

তিনি বলেন, মশা থেকে ঢাকাবাসীকে মুক্ত করার জন্য পরিকল্পিতভাবে কাজ শুরু করা হয়েছে। জলাশয়গুলোতে হাঁস ও মাছ চাষ শুরু করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে নগরবাসীকে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া থেকে মুক্ত করতে পারবো বলে আশা করছি।

কোনো সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আক্রোশ নেই জানিয়ে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, আইন অনুযায়ী ডিএসসিসিই ঢাকার জলাবদ্ধতা দূর করবে। জলাবদ্ধতা নিরসনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন প্রধান ভূমিকা পালন করবে।

পাশাপাশি অন্যান্য সংস্থার সঙ্গেও সমন্বয় করে কাজ করা হবে। ইতোমধ্যে ৩০ বছর মেয়াদি মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তাই নিবেদন থাকবে- ঢাকা কেন্দ্রিক অন্যান্য সংস্থা যদি কোনো প্রকল্প নেয়, তারা যেন পুরো বিষয়টি আমাদের সঙ্গে সমন্বয় করেন। ঢাকাকে নিয়ে যেকোনো প্রকল্প আমরা যথাযথ পালন করবো। রাজধানীকে নিয়ে আর ছেলেখেলা করতে দেয়া হবে না, যোগ করেন তিনি।

মেয়র বলেন, এবারের বাজেটে কোনো কর বৃদ্ধি করা হয়নি। আইনে থাকার পরও যেসব খাত থেকে আগে কখনো রাজস্ব আয় করা হয়নি, শুধু সেগুলোতে কর প্রয়োগ করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ডিএসসিসির রাজস্ব আরো বাড়বে।

এরপরই ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ৬ হাজার ১১৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করেন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।