দিনাজপুরে এক চিকিৎসক ও এক মহিলাসহ নতুন আরো ৬ করোনা  আক্রান্ত রোগি শনাক্ত \ এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ৬৪ \ সুস্থ ১২ 

দিনাজপুরে এক চিকিৎসক ও এক মহিলাসহ নতুন আরো ৬ করোনা  আক্রান্ত রোগি শনাক্ত \ এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ৬৪ \ সুস্থ ১২ 

দিনাজপুরে এক চিকিৎসক ও এক মহিলাসহ নতুন আরো ৬ করোনা  আক্রান্ত রোগি শনাক্ত \ এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ৬৪ \ সুস্থ ১২ 


এএনবি মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি  ঃদিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় এক চিকিৎসক ও খানসামা উপজেলায় প্রথম এক মহিলাসহ নতুন আরো ৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত  হলেন ৬৪ জন। 
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুস শুক্রবার (১৫ মে) রাত পৌনে ১০টায় সিভিল সার্জনের ফেসবুকে দেয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরো ৬ জন করোনায় আক্রান্তের খবরটি নিশ্চিত করেন। নতুন আক্রান্ত ৬ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় একজন, বিরলে একজন, বোচাগঞ্জে একজন, বীরগঞ্জে একজন, নবাবগঞ্জে একজন ও খানসামা উপজেলায় একজন। আক্রান্ত ৬৪ জনের মধ্যে ৪৮ জন পুরুষ, ১৩ জন নারী ও শিশু ৩ জন। 
তিনি জানান, নতুন আক্রান্ত ৬ জনের মধ্যে রয়েছেন একজন চিকিৎসক ও খানসামায় উপজেলায় প্রথমবারের মত একজন মহিলা। আক্রান্তদের মধ্যে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৪৪ জন এবং এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১২ জন। এছাড়া সদর উপজেলায় একজনের মৃত্যু হয়েছে।
সিভিল সার্জন জানান, ১৫ মে শুক্রবার ল্যাব হতে ২০৫টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৬ জনের নমুনায় করোনা পজিটিভ ও বাকী ১৯৯টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। এ নিয়ে দিনাজপুর জেলায় করোনায় (কোভিট-১৯) প্রমানিত রোগির সংখ্যা ৬৪ জন হলো।
তিনি জানান, এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১২ জন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ৪ জন, ফুলবাড়ীতে একজন, নবাবগঞ্জে ৩ জন, পার্বতীপুরে একজন, কাহারোলে একজন, বোচাগঞ্জে একজন ও হাকিমপুর উপজেলায় একজন। আর হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৪৪ জন। প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে রয়েছেন ৩ জন, হাসপাতালে ভর্তি করা রয়েছেন ৪ জন ও একজনের মৃত্যু হয়েছে। 
সিভিল সার্জন জানান, আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলায় ১৭ জন (মৃত একজনসহ), কাহারোলে ৭ জন, বিরলে ৬ জন, বোচাগঞ্জে ৫ জন, পার্বতীপুরে ৫ জন, ফুলবাড়ীতে একজন, নবাবগঞ্জে ৫ জন, হাকিমপুরে দুইজন, বিরামপুরে ৪ জন, ঘোড়াঘাটে ৪ জন, চিবিরবন্দরে একজন, বীরগঞ্জে ৬ জন ও খানসামা উপজেলায় একজন। তবে খানসামা উপজেলায় প্রথমবারের মত একজন করোনায় আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হলো।
তিনি আরো জানান, এ পর্যন্ত ১৭৬১টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবেরটরীতে প্রেরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ফলাফল এসেছে ১৭৪১টি নমুনার। এছাড়া ১৫ মে শুক্রবার ৬ টি নমুনা পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের আরটি পিসিআর ল্যাবেরটরীতে প্রেরণ করা হয়েছে। 
হোম কোয়ারেন্টাইনের তথ্য 
এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় ১৫৭ জনসহ এ পর্যন্ত ৭০৬৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫৩৮৪ জন এবং বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৬৮২ জন। এ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে প্রেরণ করা হয়েছে ২৩২ জনকে এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন হতে ছাড় পেয়েছেন ১৫৯ জন এবং বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৭৩ জন। 
উল্লেখ্য, দিনাজপুরে গত ১৫ এপ্রিল মঙ্গলবার প্রথম ৭ জন করোনা রোগি শনাক্ত হয়। ১৬ এপ্রিল বুধবার একজন, ১৭ এপ্রিল বৃহস্পতিবার একজন, ১৮ এপ্রিল শুক্রবার একজন, ২০ এপ্রিল রবিবার একজন, ২১ এপ্রিল মঙ্গলবার দুইজন, ২৫ এপ্রিল শনিবার একজন, ২৭ এপ্রিল সোমবার হাকিমপুরে একজন, ২৯ এপ্রিল বুধবার ঘোড়াঘাটে একজন, ৩০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার হাকিমপুর উপজেলায় আরো একজন, ২ মে শনিবার কাহারোলে ৩ জন, ৩ মে রবিবার পার্বতীপুরে একজন, ৫ মে মঙ্গলবার ৭ জন (কাহারোলে ৩ জন, পার্বতীপুরে ৩ জন ও নবাবগঞ্জ উপজেলায় একজন), ৬ মে বুধবার দিনাজপুর সদর উপজেলায় পৌর শহরে দুইজন, ৭ মে বৃহস্পতিবার ৫ জন, ৮ মে শুক্রবার বিরল উপজেলায় দুইজন, ৯ মে শনিবার বিরামপুর উপজেলায় ৩ জন, ১০ মে সোমববার ৯ জন (সদরে ৩, বীরগঞ্জে ৪ ও বোচাগঞ্জ উপজেলায় ২ জন), ১১ মে সোমবার বিরল উপজেলায় একজন, ১২ মে মঙ্গলবার দুইজন (সদরে একজন ও বিরামপুর উপজেলায় একজন), ১৩ মে বুধবার ৩ জন (বিরলে দুইজন ও বীরগঞ্জে একজন), ১৪ মে বৃহস্পতিবার দিনাজপুর সদর উপজেলায় আরো দুইজন (এক দম্পতি) ও সর্বশেষ নতুন আরো ৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়।