দিনাজপুরে ৫০ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের  অভিযোগে এক এনজিও কর্মকর্তা আটক

দিনাজপুরে ৫০ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের  অভিযোগে এক এনজিও কর্মকর্তা আটক

দিনাজপুরে ৫০ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের  অভিযোগে এক এনজিও কর্মকর্তা আটক


মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ দিনাজপুরে ৫০ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আবু হায়াত আল মাহমুদ (৫০) নামে এক এনজিও কর্মকর্তাকে আটক করেছে পুলিশ।
সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে দিনাজপুর শহরের ঈদগাহ আবাসিক এলাকায় একটি ফ্লাট থেকে তাঁকে আটক করে কোতয়ালী থানা পুলিশ। সোমবার বিকেল থেকে ভুক্তভোগি গ্রাহকরা তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে রাতে তাকে আটক করে কোতয়ালী থানা পুলিশ।
আবু হায়াত আল মাহমুদ দিনাজপুর সদর উপজেলার আউলিয়াপুর গ্রামের মৃত জাহিদ হাসানের ছেলে। তিনি “ব্রিজ অফ লাইট ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন” এর চেয়ারম্যান। এনজিওটির সদস্য সংখ্যা ৫ শতাধিক বলে জানা গেছে।
আমিনা খাতুন নামে এক ভুক্তভোগী জানান, গত কয়েকদিন আগে এনজিওর একজন মাঠকর্মী তার বাড়িতে গিয়ে একটি ফরম পূরণ করে নেয়। পরে তারা তাকে তাদের সমিতি থেকে ঋণ দেয়ার প্রস্তাব দিয়ে বলে যে, ৫ লাখ টাকা ঋণ দেয়া হবে। তবে ওই মাঠকর্মীকে ৫০ হাজার টাকা অগ্রীম দিতে হবে। এই কথা শুনে আমিনা থাতুন মানুষের কাছ থেকে ঋণ করে ৫০ হাজার টাকা দেন। তারা আমিনাকে ১১ এপ্রিল ঋণ দেয়ার কথা জানিয়ে সেখান থেকে চলে আসে। সোমাবার বিকেলে আমিনা খবর পান যে, অনেক মানুষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। এই খবর শুনে ঈদগাহ আবাসিক এলাকায় ওই অফিসের সামনে এসে শত শত গ্রাহকের ভিড় দেখতে পান আমিনা।
আটক আবু হায়াত আল মাহমুদ জানান, তার এই অফিসে ১৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। ১৫ দিন আগে তিনি এই অফিসের কার্যক্রম চালু করেছেন। সমবায় থেকে রেজিস্ট্রেশন নিয়েছেন বলেও জানান তিনি।
দিনাজপুর কোতয়ালি থানার এএসআই বাদল কুমার জানান, এনজিও কর্মকর্তা অনেক মানুষের টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যাচ্ছিলেন। বিকেলে তাকে অফিসে আটক করে রাখে ভুক্তভোগি মানুষ। পরে খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করে রাত ১২টায় এনজিও কর্মকর্তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। বিক্ষুব্ধ জনতাকে থানায় আসতে বলা হয়েছে। সেখানে দু’পক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসা হবে। আলোচনায় বসে বিষয়টির মিমাংসা করা হবে বলে জানান তিনি।