দিনাজপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা তাঁতী লীগের উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত

দিনাজপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা তাঁতী লীগের উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত

দিনাজপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা তাঁতী লীগের উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত


 এএনবি মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন কর্মসূচী পালন করেছেন দিনাজপুর জেলা তাঁতীলীগ। “কোভিড-১৯ প্রতিরোধে “সচেতনতাই পারে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করতে” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে জনসচেতনতামূলক  এই ক্যাম্পেইন কর্মসূচী পালন করেছে সংগঠনটি।
শনিবার (২৭ জুন) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে বাংলাদেশ তাঁতীলীগ দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইনে জেলা  তাঁতী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম আলালের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সামসুল হুদা শান্ত’র সঞ্চালনায় ক্যাম্পেইনে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলতাফুজ্জামান মিতা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ্ মো. রফিকুল ইসলাম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এবং চিরিরবন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তারিকুল ইসলাম তারিক, পিপি এ্যাড. মো. রবিউল ইসলাম রবি, স্পেশাল পিপি এ্যাড. সামসুর রহমান পারভেজ, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা কেন্দ্রীয় কমিটির মুখপাত্র মো. মনিরুজ্জামান জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ইমতিয়াজ ইনান, সাবেক সভাপতি রবিউল ইসলাম রবু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও জেলা তাঁতী লীগের সদস্য মো. শওকত হোসেন বুল্লা, জেলা তাঁতী লীগের সদস্য সিরাজুল ইসলাম, কামরুজ্জামান বিপ্লব, সৈয়দা সুলতানা ফেরদৌসী, চিরিরবন্দর উপজেলা তাঁতীলীগের আহবায়ক লুৎফর রহমান বিদ্যুৎ, ফুলবাড়ী উপজেলা তাঁতী লীগের জাহিদুল ইসলাম জাহিদ প্রমুখ। 
ক্যাম্পেইনে বক্তারা বলেন, নাক ও মুখে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, পারস্পারিক (৩ থেকে ফিট) শারীরিক দুরত্ব মেনে চলতে হবে, ঘন ঘন সাবান পানি দিয়ে হাত ধৌত করতে হবে অথবা হাত স্যানিটাইজ করতে হবে। বক্তারা জেলার সর্বত্র করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। যেহেতু এখন পর্যন্ত এই রোগের প্রতিষেধক এবং পরীক্ষিত কোন চিকিৎসা আবিস্কার হয়নি তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে রোগ প্রতিরোধ করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শ মতে সকল নিয়মকানুন মেনে চলার জন্য সকল সচেতন নাগরিকদের প্রতি আহবান জানান। বক্তারা বলেন, সবসময় মুখে পরিস্কার মাস্ক দিয়ে নাক ও মুখ ভালোভাবে ঢেকে ঘরের বাহিরে যেতে হবে। কোন অবস্থাতেই মাস্ক দ্বারা নাক-মুখ না ঢেকে ঘরের বাহিরে চলাচল করা যাবেনা। ভীড় বা জমায়েত এড়িয়ে চলতে হবে, ব্যক্তি থেকে ব্যক্তির শারীরিক দূরত্ব কমপক্ষে ৩ ফুট বজায় রাখতে হবে। হাঁচি-কাশির সময় নাক-মুখ ঢেকে রাখতে হবে। যত্রতত্র থুথু, কফ, ও ব্যবহৃত টিস্যু, ব্যবহৃত মাস্ক, ব্যবহৃত হ্যান্ড গেøাভস ইত্যাদি ফেলা যাবে না। নিয়মিতভাবে সাবান দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড হাত ধুয়ে বা স্যানিটাইজার ব্যবহার করে হাত পরিস্কার করতে হবে। বিকেল ৪টার পর সরকার ঘোষিত নির্দিষ্ট পণ্যের দোকান ছাড়া অন্য সব দোকান বন্ধ থাকবে। রাত ৮টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত অতিব জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কোন অবস্থাতেই বাড়ির বাহিরে অবস্থান বা চলাচল করা যাবেনা। দিনাজপুর জেলায় সংক্রমণ রোধে সতর্ক থেকে নিজে এবং অপরকে সুরক্ষিত রাখতে সহযোগিতা করার জন্য সকলকে অনুরোধ জানানো হয় ক্যাম্পেইন থেকে।