পীরগাছায় আশ্রয়কেন্দ্রে বানভাসি মানুষগুলোকে নিজ হাতে তুলে খাওয়ালেন ডিসি ও ইউএনও

পীরগাছায় আশ্রয়কেন্দ্রে বানভাসি মানুষগুলোকে নিজ হাতে তুলে খাওয়ালেন ডিসি ও ইউএনও

পীরগাছায় আশ্রয়কেন্দ্রে বানভাসি মানুষগুলোকে নিজ হাতে তুলে খাওয়ালেন ডিসি ও ইউএনও


এএনবি গোলাম আযম সরকার (পীরগাছা)রংপুরঃ
রংপুর জেলা প্রশাসক মোঃ আসিব আহসান  পীরগাছা উপজেলার  আশ্রয়কেন্দ্রে কেমন আছে বানভাসি মানুষগুলো তা'দেখতে গতকাল আসেন।  ১২ জুলাই গভীর রাতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল এবং অতিবৃষ্টি কারণে সৃষ্ট হঠাৎ বন্যায় পীরগাছা উপজেলার ছাওলা ইউনিয়নের ৬টি ওয়ার্ডে ১৪টি মৌজা প্লাবিত হলে  তাৎক্ষনিক উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদ, ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায়  ৫১টি পরিবার ও শতাধিক গরু ছাগলকে আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে আসেন ওইদিন ভোররাতে। বর্তমানে আশ্রয় নেওয়া  সকলেই ভালো আছেন।  উপজেলার ৫টি আশ্রয়কেন্দ্রের মধ্যে  ৪ টিতে আশ্রয় নিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ্যরা। তাদের জন্য উপজেলা প্রশাসনের আয়োজন চলছে  প্রতিদিনেই রান্নাবান্না। এছাড়াও দেওয়া হচ্ছে শুকনো খাবার,ত্রান,শিশুখাদ্য, ও নগত অর্থ ।
পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমীন প্রধান বলেন, তাদের ভেসে যাওয়া ঘর পুনঃনির্মানের জন্য প্রচেষ্টা চলছে একই সাথে পানিবন্দি পরিবারের মাঝে এ পর্যন্ত ২০মে:টন চাল ১০কেজি হারে ২০০০ টি পরিবারে প্রদান করা হয়েছে। তিনি আরোও বলেন,  ৫০০টি পরিবারে শুকনা খাবার ও ২৭০টি পরিবারকে শিশু খাদ্য বিলি করা হয়েছে। 
এবারের  বন্যায়  ওই ইউনিয়নের ১৬৭টি পরিবার নদী ভাংগনে বিলীন হয়েছে । বতর্মানে যদিও পনি কমতে শুরু করলেও এখনোও  ৩৫০০টি পরিবার পানিবন্দি রয়েছে বলে জানাগেছে