ভয়াবহ বন্যা আসছে তলিয়ে যেতে পারে উত্তরবঙ্গ

ভয়াবহ বন্যা আসছে তলিয়ে যেতে পারে উত্তরবঙ্গ

ভয়াবহ বন্যা আসছে তলিয়ে যেতে পারে উত্তরবঙ্গ

   এএনবি ঃ জুন মাসের শেষের দিকে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলের জেলাগুলোতে মধ্য ও স্বল্প মেয়াদি বন্যা হতে পারে। অপরদিকে উত্তরাঞ্চলে দেখা দেয়া বন্যার অবনতি হতে পারে আগামী ২৪ ঘণ্টায়। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র ২৬ জুন শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে। ইতোমধ্যে তিস্তা নদীর পানি ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ১৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে নীলফামারীর চরাঞ্চলে বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, ২৫ জুন থেকে আগামী ১০ দিনের বন্যার পূর্বাভাসে ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদীর পানি বাড়তে পারে। ২৭ জুন নাগাদ ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি কুড়িগ্রামের উলিপুর ও চিলমারীতে এবং ২৮-২৯ জুন নাগাদ যমুনা নদীর পানি গাইবান্ধার ফুলছড়ি, জামালপুরের বাহাদুরাবাদ, সিরাজগঞ্জের কাজীপুর, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দিতে; টাঙ্গাইলের এলাসিনে বিপদসীমা অতিক্রম করার প্রায় শতভাগ সম্ভাবনা রয়েছে।

এর ফলে এসব জেলায় ৫ থেকে ৭ দিন বন্যা হতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। এতে আরও বলা হয়, গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানির সমতল বাড়তে পারে। আপাতত গঙ্গা-পদ্মা নদীর অববাহিকায় বিপদসীমা অতিক্রমের সম্ভাবনা নেই। পদ্মা নদী মুন্সিগঞ্জ জেলার ভাগ্যকুল পয়েন্ট এবং রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ পয়েন্টে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এসব জেলায় স্বল্প ও মধ্যমেয়াদি বন্যা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ঢাকার চারপাশের নদীর পানি সামান্য বাড়তে পারে। ঢাকার চারপাশের নদীগুলোর অববাহিকায় বিপদসীমা অতিক্রমের শঙ্কা নেই বলেও জানায় বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র।

তবে দেশের উত্তরবঙ্গে ভয়াবহ বন্যা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান আবহাওয়া অধিদপ্তর।