সীমান্ত সংঘাত নিরসনে যে সিদ্ধান্তে পৌছাল ভারত ও চীন

ভারত-চীন সীমান্ত উত্তেজনার মধ্যেই মঙ্গলবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক করেন নয়াদিল্লি ও চীনের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে স্থিতিশীল বিশ্ব গড়তে আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান জানানোর আহ্বান জানান ভারতীয় প্রতিনিধি।

সীমান্ত সংঘাত নিরসনে যে সিদ্ধান্তে পৌছাল ভারত ও চীন

এএনবি (আন্তর্জাতিক ডেস্ক) ঃ ভারত ও চীন সীমান্তে চলমান সংঘাত নিরসনে জন্য দুদেশের কামান্ডার পর্যায়ের বৈঠকে সংঘাত নিরসনে একমত পোষণ করেছেন। মঙ্গলবার (২৩ জুন) কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠকের পর বেইজিং ও নয়াদিল্লি এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। তবে সংঘাতে ৪০ চীনা সেনা নিহতের ভারতীয় দাবিকে মিথ্যাচার বলে উড়িয়ে দিয়েছে বেইজিং। এরমধ্যেই, ভারত-চীন নিজেরাই সংকট সমাধান করতে পারবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে রাশিয়া। ভারত-চীন সীমান্ত উত্তেজনার মধ্যেই মঙ্গলবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক করেন নয়াদিল্লি ও চীনের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে স্থিতিশীল বিশ্ব গড়তে আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান জানানোর আহ্বান জানান ভারতীয় প্রতিনিধি। ভারত-চীন সংকট সমাধানে কারো সহায়তা লাগবে না বলে জানায় মস্কো।

রাশিয়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, সমস্যা সমাধানে ভারত ও চীনের কাছেই যথেষ্ট উপায় আছে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে তাদের কারো সহায়তা লাগবে বলে মনে হয় না। ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেন, টেকসই বিশ্ব গড়তে হলে সর্বাবস্থায় আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে হবে। অংশীদারকে বৈধ স্বার্থকে স্বীকৃতির পাশাপাশি বহুপাক্ষিক মতামতকে সমর্থন করা জরুরি। সীমান্ত সংকট নিসরনে এদিন কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক করে নয়াদিল্লি-বেইজিং। সংঘাতের পর প্রথম দফার বৈঠকে উত্তেজনা নিরসনে দুপক্ষ একমত হয় বলেও জানানো হয়।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেন, সকংটের নানা দিক নিয়ে উভয়ে আলোচনা করেছে। নিজেদর মধ্যকার অনৈক্য সমঝোতার মাধ্যমে সমাধানে আশাবাদী দুপক্ষ। আশা করি এ আলোচনা অব্যাহত থাকবে। এছাড়া, ভারতীয় কর্তৃপক্ষের বরাতে গণমাধ্যমে প্রকাশিত ৪০ চীনা সেনা নিহতের দাবি ভিত্তিহীন। গেলো ১৫ জুন কাশ্মীরের লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সংঘাতে জড়ায় ভারত ও চীনের সেনাবাহিনী। এতে ভারতের ২০ সেনা নিহত হয়। আহত হয় অর্ধশতাধিক।